অ্যাডিলেডে কোহলির রান আউটের আক্ষেপ

অথর
সময়ের দিগন্ত ডেক্স :   বাংলাদেশ
প্রকাশিত :১৭ ডিসেম্বর ২০২০, ৫:৫৩ অপরাহ্ণ | নিউজটি পড়া হয়েছে : 82 বার
অ্যাডিলেডে কোহলির রান আউটের আক্ষেপ

চেতেশ্বর পূজারা যেভাবে ব্যাট করছিলেন, বিরাট কোহলি ও অজিঙ্কে রাহানে যেভাবে ব্যাট করছিলেন, তাতে ঋদ্ধিমান সাহা ও রবিচন্দ্রন অশ্বিন ভাবতে পারেননি অ্যাডিলেড টেস্টের প্রথম রাতে তাদের ঘুমোতে যেতে হবে বিশাল চাপ নিয়ে।

অবিচ্ছিন্ন সপ্তম উইকেটে ওরা দুজন ২৭ রানের জুটি গড়ে ভারতকে নিয়ে গেছেন ৬ উইকেটে ২৩৩ রানে। তবে মনে হয় না আরও শ খানেক রান যোগ করতে না পারলে ভারত অস্ট্রেলিয়াকে চ্যালেঞ্জ জানাতে পারবে। শ খানেক কেন, বেশ বড়সড় স্কোরেরই আভাস দিচ্ছিল কোহলির ব্যাট। ধৈর্য্যশীল অথচ অভিজাত ব্যাটিংয়ে টসজয়ী ভারত অধিনায়ক অস্ট্রেলিয়াকে চ্যালেঞ্জই ছুড়ে দিয়েছিলেন। কিন্তু দুর্ভাগ্য, রাহানের সঙ্গে ভুল বোঝাবুঝিতে রানআউটে কাটা গেছে ৮টি চারে সাজানো ৭৪ রানের অসাধারণ ইনিংসটির। অফস্পিনার নাথান লায়নকে মিড অফে ড্রাইভ করে রাহানে দৌড় দিয়েছিলেন রান দেখে, কোহলি দ্রুত পায়ে সাড়া দিয়ে চলে গিয়েছিলেন অর্ধেক ক্রিজ, রাহানে যখন তাকে ‘না’ করেন ফেরার উপায় ছিল না। হ্যাজলউডের ছোড়া বল ধরে স্টাম্প ভেঙে দেন লায়ন। ভারত তখন ১৮৮/৪। কোহলি আউট মানেই চাপ, আর তাতেই ১৮ রানে গেছে ৩ উইকেট। ট্যুর ম্যাচে দারুণ করেছেন রাহানে ও হনুমা বিহারি। তারা খেলছিলেনও ভালো, ভালো শুরু করেছিলেন। কিন্তু এলবিডব্লিউ হয়ে গেলেন চাপের কাছে নতিস্বীকার করে। রাহানেকে (৪২) ফিরিয়েছেন বাঁহাতি পেসার মিচেল স্টার্ক, বিহারিকে (১৬) জশ হ্যাজলউড।

রাতের কৃত্রিম আলোয় গোলাপি বলে ব্যাট করা কত কঠিন, স্টার্ক-হ্যাজলউড-কামিন্সের সঙ্গে অভিষিক্ত পেসার ক্যামেরন গ্রিন এটা বারবারই বুঝিয়েছেন। তারপরও ঋদ্ধিমান ও অশ্বিন দৃঢ়তার সঙ্গে দিনের শেষ পাঁচটি ওভার কাটিয়ে দিয়েছেন। এরা দুজন ব্যাটিংয়ের লেজটাকে দ্বিতীয় দিনের প্রথম সেসন পর্যন্ত আড়াল করতে পারলে এ টেস্ট অস্ট্রেলিয়ার নিয়ন্ত্রণেই যাবে। অবশ্য দেশের মাটিতে সাতটি দিবারাত্রির টেস্ট খেলে সবগুলোতেই জেতা অস্ট্রেলিয়া এখানে ‘স্পেশালিস্ট’। প্রথম দিনে ৬ উইকেট তুলে তারা তাই খানিক এগিয়েই গেছে বলা যায়। আরও এগিয়ে যেতো যদি না পূজারা-কোহলি দাঁড়িয়ে যেতেন।

দিনের দ্বিতীয় বলেই পৃথ্বী শকে শূন্য রানে বোল্ড করে স্বপ্নের মতো সূচনা এনে দিয়েছিলেন স্টার্ক। অন্য ওপেনার মায়াঙ্ক আগরওয়ালও (১৭) একইভাবে কামিন্সের বলে প্লেড অন হয়ে বড় ধাক্কা দিয়ে যান দলকে। এরপরই পূজারা-কোহলির ৬৮ রানের জুটিতে তিন অঙ্ক ছোঁয় ভারত। পূজারাকে অস্বস্তিতে ভুগিয়ে লায়নই তাকে আউট করেছেন ৪৩ রানে। রিভিউ নিয়ে সফল অস্ট্রেলিয়া, লেগ গালিতে পূজারার গ্লাভস ছুঁয়ে যাওয়া ক্যাচ নেন মার্নাস লাবুশেন। এরপর চতুর্থ উইকেটেই ভারতের ব্যাটিংয়ের সুন্দরতম সময়টা গড়েন কোহলি ও রাহানে, জুটি হয় ৮৮ রানের। এই জুটিটা ভারতকে বৃহস্পতিবারই নিয়ে যেতে পারতো আলোকিত জায়গায়। কিন্তু যেতে পারেনি একটা রানআউটের কারণে।

অস্ট্রেলিয়ায় ঐতিহাসিক সিরিজ জেতা গত সফরের অ্যাডিলেড টেস্টে ভারত প্রথমদিন করেছিল ৯ উইকেটে ২৫০ রান। তারপরও জিতেছিল কোহলির দল। সেই তুলনায় এবার প্রথমদিনের ২৩৩/৬ বলে যথেষ্টই ভালো অবস্থা। কিন্তু মনে রাখতে হবে গত সফরে নিষেধাজ্ঞার কারণে স্টিভ স্মিথ খেলতে পারেননি। এবার দুর্দান্ত ফর্ম নিয়ে সাবেক অধিনায়ক দলে। সুতরাং ভারত প্রথম ইনিংসে তিনশোর ওপর না গেলে বলতে পারবে না ভালো জায়গায় আছে। সেজন্য ঋদ্ধিমান ও অশ্বিনের ব্যাট বড় ভরসা।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

শেয়ার করে  সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

six − 1 =