কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে দীর্ঘসূত্রীয় সড়কের সংস্কার কাজ ॥ ভোগান্তিতে জনসাধারন

নিজস্ব প্রতিবেদক   বাংলাদেশ
প্রকাশিত :৫ মার্চ ২০২০, ৫:০১ পূর্বাহ্ণ | নিউজটি পড়া হয়েছে : 245 বার
কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে দীর্ঘসূত্রীয় সড়কের সংস্কার কাজ ॥ ভোগান্তিতে জনসাধারন

সময়েরদিগন্ত.কম ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে দীর্ঘসূত্রীয় সড়কের সংস্কার কাজ। ভোগান্তিতে পড়েছে জনসাধারন। কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলায় প্রায় ৮ কোটি টাকা ব্যয়ে ৮ কিলোমিটার সড়কের সংস্কার কাজ চলছে দীর্ঘদিন যাবত। কাজ শুরু করার এক বছর পার হলেও শেষ হয়নি সংস্কার কাজ। এলজিইডি অফিস সূত্রে জানা যায়, কুষ্টিয়া জেলার দৌলতপুর উপজেলার তারাগুনিয়া জিসি ডাংমড়কা আরএন্ডএইচ সড়ক পূর্ণবাসন করণ কাজের জন্য ২০১৮-১৯ অর্থ বছরে টেন্ডার আহবান করা হয়। বন্যা দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্থ পল¬ী সড়ক অবকাঠামো পুনবার্সন প্রকল্প থেকে সড়কটি সংস্কারের জন্য উদ্যোগ নেয়া হয়।

এ জন্য প্রাক্কলিত মূল্য ধরা হয় ৭ কোটি ৭৯ লাখ ৫৭ হাজার ৫৮৩ টাকা। প্রায় ৮কিলোমিটার সড়ক সংস্কারে এ ব্যয় ধরা হয়। তবে চুক্তি হয়েছে ৭ কোটি ৭০ লাখ ৯৯ হাজার ৪৩৫ টাকায়। জেভি (জয়েন্ট ভেনচার) তিনটি ঠিকাদারি ফার্মকে কাজটি দেয়া হয়। ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান খেয়ালিপনা কর্তৃপক্ষের গাফিলতি দীর্ঘদিন সংস্কারের জনসাধারনের ভোগান্তির শেষ নেই। দৌলতপুর উপজেলা ৬ ইউনিয়নের (প্রাগপুর, মথুরাপুর, আদাবাড়িয়া, রামকৃষ্ণপুর, চিলমারী ও ফিলিপনগর) জনসাধারণের জেলা শহরের সাথে যোগাযোগের একমাত্র সড়ক এটি।

গত বছরের মার্চ মাসে কাজ শুরু হয়ে ১ আগষ্ট সংস্কার কাজ শেষ হওয়ার কথা থাকলেও এখন পর্যন্ত কাজ শেষ হয়েছে ৪০ভাগের মতো। যদিও বিভিন্ন সূত্র জানায়, কাজের সময়সীমা বাড়িয়ে নিয়েছে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানগুলো। তবে এ বিষয়ে কোন সত্যতা পাওয়া যায়নি। এদিকে গত ৩ মার্চ বিকেল সাড়ে ৪ টায় কুষ্টিয়া-প্রাগপুর সড়কের মথুরাপুর বাজারে বিক্ষুদ্ধ জনতা দীর্ঘসূত্রীয় সড়ক নির্মানের প্রতিবাদে সড়ক অবরোধ করে।

এ বিষয়ে এলজিইডি’র দৌলতপুর উপজেলা প্রকৌশলী ইফতেখার উদ্দিন জোয়াদ্দার বলেন, ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানগুলোকে কাজ দ্রুত শেষ করার জন্য মৌখিক ও লিখিতভাবে নোটিশ করা হয়েছে। কিন্তু তা কোন কাজে আসছে না। ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানগুলো আমাকে জানিয়েছে, কাজের সময় বাড়ানো হয়েছে মন্ত্রনালয় থেকে, কিন্তু এ বিষয়ে আমি কোন কাগজপত্র পায়নি। আমি বিষয়টি উর্দ্ধতন কর্মকর্তাদেরকে জানিয়েছি। উনারা যা ব্যবস্থা গ্রহণ করার করবেন।

সংবাদটি শেয়ার করে দৈনিক সময়ের দিগন্তের সাথে থাকুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

শেয়ার করে  সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

20 + 16 =


আরও পড়ুন