কুষ্টিয়া সরকারী কলেজের মানক্ষুন্ন করতে আদর্শিক শিক্ষকের বিরুদ্ধে অপপ্রচারনা

অথর
সময়ের দিগন্ত ডেক্স :   বাংলাদেশ
প্রকাশিত :১৫ জুলাই ২০১৯, ৫:০৬ অপরাহ্ণ | নিউজটি পড়া হয়েছে : 2464 বার
কুষ্টিয়া সরকারী কলেজের মানক্ষুন্ন করতে আদর্শিক শিক্ষকের বিরুদ্ধে অপপ্রচারনা

সময়েরদিগন্ত.কম ॥ কুষ্টিয়া সরকারী কলেজের মানক্ষুন্ন করতে একটি কুচক্রি মহল উদ্ভিদ বিজ্ঞান বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ও সহযোগী অধ্যাপক আহসান কবির রানা’র বিরুদ্ধে অপপ্রচারে লিপ্ত। বিভিন্ন ফেসবুক থেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় একজন আদর্শিক শিক্ষকের বিরুদ্ধে যে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে তা জাতির কাছে লজ্জাজনক। এ বিষয়ে কলেজের একাধিক ছাত্র-ছ্ত্রাীর সাথে কথা বললে তারা এর তীব্র প্রতিবাদ জানায়। তারা বলেন, কুষ্টিয়া সরকারী কলেজের আইনশৃংঙ্খলা বহিরাগতদের দমন, ইভটিজিং, ছিনতাই থেকে শুরু সব ধরনের অনৈতিক কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে রানা স্যার ছিলেন সর্বদায় সোচ্চার। তাই এক শ্রেণীর কুচক্রি মহল কুষ্টিয়া সরকারী কলেজের মানক্ষুন্ন করতে রানা স্যারের বিরুদ্ধে বিভিন্ন মাধ্যমে অপপ্রচার চালাচ্ছে। এছাড়াও ছাত্র-ছাত্রীরা আরো জান্য়া, গতকাল ঝালমুড়ি ও সিগারেট বিক্রেতার মারধরের ঘটনার সাথে রানা স্যার কোনভাবেই জড়িত নই। রানা স্যার কুষ্টিয়া সরকারী কলেজ আইনশৃংঙ্খলা কমিটির সদস্য হিসেবে ঝালমুড়ি ওয়ালাকে কলেজ ক্যাম্পাসের বাইরে বিক্রয় করতে বলে, কারণ ঝালমুড়ি ও সিগারেট বিক্রেতার নিকট বহিরাগত বখাটেদের আড্ডাখানা। কলেজের মেয়েরা ঐ সকল বখাটেদের হাতে বিভিন্নভাবে ইভটিজিং এর শিকার হয়। এর প্রতিবাদ করায় রানা স্যারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের অভিপ্রায়। সুত্র জানায়, আহসান কবীর রানা স্যার কুষ্টিয়া সরকারি কলেজ শৃঙ্খলা কমিটির সদস্য, কলেজ একাডেমিক ক্যালেন্ডার ও কোর্স প্লান প্রণয়ন এবং বাস্তবায়ন কমিটির আহবায়ক, উদ্ভিদ বিজ্ঞান বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ও সহযোগী অধ্যাপক ও বিএনসিসির কোম্পানি কমান্ডার বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর অনারারী ল্যাফটেন্যান্ট। কুষ্টিয়া সরকারী কলেজের মানউন্নয়নে যার অবদান অপরিসিম। তার বিরুদ্ধে এমন অপপ্রচারে তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে ছাত্র-ছাত্রী ও শিক্ষকবৃন্দ। এ বিষয়ে রানা স্যার জানান, ভালো কাজ করতে গেলে বাধার সম্মূর্খীন হতে হয়, আমিও তারই সম্মর্খীন হচ্ছি। কুষ্টিয়া সরকারী কলেজের শৃংঙ্খলা বজায় রাখার জন্য আমি আমার সর্বাত্বক প্রচেষ্টা চালিয়ে যাবো। তিনি আরো বলেন, এ ধরনের অপপ্রচার আমার বিরুদ্ধে একটি ষড়যন্ত্র মাত্র।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

শেয়ার করে  সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

6 + seventeen =