স্ত্রী-সন্তানের জন্য আকুল মালিককে বিশেষ ছুটি

নিজস্ব প্রতিবেদক   বাংলাদেশ
প্রকাশিত :২০ জুন ২০২০, ৪:৩২ অপরাহ্ণ | নিউজটি পড়া হয়েছে : 73 বার
স্ত্রী-সন্তানের জন্য আকুল মালিককে বিশেষ ছুটি

ইংল্যান্ডের সঙ্গে তিন টেস্ট ও তিন টি-২০ ম্যাচের সিরিজ খেলতে ২৮ জুন ইংল্যান্ড রওনা হচ্ছে পাকিস্তান দল। তবে এই দলের একজন ওইদিনই বিমানে উঠবেন না। তার উড়ান প্রায় একমাস পর, ২৪ জুলাই। কে তিনি? করোনাভাইরাস মহামারির বর্তমান পরিস্থিতিতে কেনই বা দলছুট হবেন তিনি? ইনি শোয়েব মালিক। পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ককে স্ত্রী-সন্তানের সঙ্গে দেখা করার জন্য বিশেষ ছুটি দিয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড।

বিষয়টি মানবিক বলে পিসিবি যেমন শোয়েব মালিককে অনুমতি দিয়েছে আবার ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ডও আপত্তি করেনি। স্বামী-স্ত্রী দুই দেশের দুই ক্রীড়াতারকা। ক্রিকেটার মালিকের ঠিকানা শিয়ালকোট, পাকিস্তান। তার স্ত্রী ভারতীয় টেনিস তারকা সানিয়া মির্জা থাকেন ভারতের হায়দরাবাদে, তার বাবা-মায়ের কাছে। সানিয়া শ্বশুরবাড়িতে মাঝেমধ্যে যান। কখনও কখনও দুবাই হয় দুজনের অস্থায়ী আবাস। এর মধ্যে সন্তান এসেছে দুজনের মাঝখানে। করোনাভাইরাসের কারণে কতদিন যে ছোট্ট ছেলেটির মুখ দেখা হয়নি! সর্বশেষ যখন ছেলে ইজহানকে কোলে নিয়েছেন, তার বয়স এক বছর, এখন পড়েছে দেড় বছরে। মার্চ মাসে মালিক যখন পেশোয়ার জালমির হয়ে পাকিস্তানে সুপার লিগে খেলছিলেন, হঠাৎই তা বন্ধ হয়ে যায় করোনায়, তার আগেই সানিয়া ছেলেকে নিয়ে চলে এসেছেন ভারতে। পরপরই বিমান চলাচল বন্ধ হয়ে গেল, কোনও দেশেই যাওয়ার উপায় রইল না। বিমান চলাচল এখনও স্বাভাবিক হয়নি দুই দেশের মধ্যে। সীমিত পরিসরে অন্য আন্তর্জাতিক গন্তব্যে বিমান ভ্রমণ একটু উন্মুক্ত হয়েছে। হয়তো দুবাইয়েই স্ত্রী-সন্তানের সঙ্গে দেখা হতে পারে মালিকের।

পিসিবির সিইও ওয়াসিম খান বিবৃতিতে বলেছেন, ‘খেলার দায়বদ্ধতার কারণে এবং পরবর্তীকালে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আরোপ হওয়ায় আমাদের আর সবার মতো শোয়েব মালিক তার স্ত্রী-সন্তানের সঙ্গে দেখা করতে পারেননি প্রায় পাঁচ মাস। ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা যেহেতু এখন একটু করে সহজ হচ্ছে, তাই শোয়েবের জন্য তার পরিবারের সঙ্গে মিলিত হওয়ার সুযোগ এসেছে। মানবিক দিকটা বিবেচনা করেই আমরা তাই শোয়েবের অনুরোধকে সম্মান জানিয়েছি।’

ওয়াসিম খানই জানিয়েছেন ব্যাপারটি ইসিবিকে জানালে তারাও সহানুভূতিশীল আচরণ করেছে, তাই ২৪ জুলাইয়ের পরে ব্রিটেনে ঢোকার অনুমতি পেয়ে গেছেন মালিক। তবে তাকেও পাকিস্তান দলের সঙ্গে যোগ দেওয়ার আগে ব্রিটিশ সরকারের স্বাস্থ্যবিধি মেনে কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে।

পাকিস্তান দল ডার্বিশায়ারে থাকবে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে। কোয়ারেন্টিনে থেকেই চলবে অনুশীলন। নিজেদের মধ্যে প্র্যাকটিস ম্যাচ খেলেই প্রস্তুত হতে হবে পাকিস্তানকে। কারণ ইসিবি এখনও ঘরোয়া ক্রিকেট শুরু করেনি বলে কোনও স্থানীয় দলকে পাওয়া যাবে না।

তিন টেস্ট সিরিজের প্রথমটি শুরু হবে ৩০ জুলাই। টেস্ট সিরিজ শেষে টি-টোয়েন্টি সিরিজেই খেলবেন ৩৮ বছর বয়সী মালিক। ২০১৫ সালে টেস্ট থেকে অবসর নিয়ে ৫০ ওভারের ক্রিকেটকেও বিদায় বলে দিয়েছেন গত বছর। শুধু টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটটাই এখনও চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি।

সংবাদটি শেয়ার করে দৈনিক সময়ের দিগন্তের সাথে থাকুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

শেয়ার করে  সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

5 − 4 =